মোবাইলে শর্ট ফিল্ম বানিয়ে মণিপুরী ছেলের বিশ্বজয়

image
সোরাইজাম উৎপল সিংহ। ছবি : ফেইসবুক।

প্রকাশ: ২০২১/০২/২২ ০৩:২৯

সোরাইজম উৎপল সিংহ। জাতিতে মণিপুরি। বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটের গাজীপুর ইউনিয়নের শিবনগর গ্রামে। এ বছর ভারতের মণিপুর রাজ্যে মণিপুরী ভাষায় ৩ থেকে ৫ মিনিটের উপর খাপ্রী ইন্টারন্যাশনাল মণিপুরী  শর্ট ফিক্সন ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অ্যাওয়ার্ড জিতেছে তাঁর নির্মিত শর্ট ফিল্ম।

প্রতাপশালী করোনা ভাইরাস মহামারির উপর ভিত্তি করে স্বল্পদৈর্ঘ্য এ চলচ্চিত্রটি মোবাইলে নির্মাণ করা হয়েছে। গল্পের কাহিনী লিখেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ভারতীয় নাগরিক নিংথোজম বিদ্যারাণী।

গতকাল একুশে ফেব্রুয়ারীর দিন বেলা ১টায় মেইপা ভেন্যুতে বিজয়ীদের মধ্যে এ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। এসময় সোরাইজম উপস্থিত না থাকলেও পাবুং নামের একজন তাদের পুরস্কার গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে শর্ট ফিল্ম নির্মাতা উৎপল বলেন, ‘শ্রদ্ধেয় পাবুং মূল্যবান সময় ব্যয় করে আন্তরিকতার সাথে আমাদের এওয়ার্ডটি গ্রহণ করার জন্য টিমের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

পুরস্কার অর্জনে অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘জমা দেয়ার শেষ সময়ে মোবাইলে ধারণ করা আর মাত্র দুই দিনের মধ্যে তৈরী করা ফিল্মটি এওয়ার্ড পাবে আশা করিনি। কিন্তু আজকের এই অর্জন আমাদের টিমের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে বলে মনে করি।’

সোরাইজম উৎপল সিংহের তৈরি সিনেমাটি গত ১৭ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় ধাপের বাছাইপর্বের ৪টি এওয়ার্ড তালিকায় স্থান পেলে তাঁর আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত হয়। আর সে সময় খবরটি নিশ্চিত করেছিলেন ফেস্টিভ্যালের চেয়ারম্যান ডা. এস মনউতন সিং।

চলচ্চিত্রের বিষয়ে নির্মাতা উৎপল সিংহ বলেন, ‘কোভিড -১৯ মহামারি বিশ্বজুড়ে মানব সমাজে প্রচুর দুর্ভোগ নিয়ে এসেছে। অনেক দায়িত্বশীল ব্যক্তি এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে সময়োপযোগী পদক্ষেপের অভাবে সর্বত্র প্রচুর কষ্ট এবং উচ্চতর হতাহতের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। সঠিক ব্যবস্থা এবং প্রস্তুতিসহ একটি প্রতিক্রিয়াশীল সিস্টেম করোনা ভাইরাসের শিকার অনেক প্রিয় এবং নিকটস্থ লোকের ক্ষতি এড়াতে পারে। ফিল্মটি দেখিয়েছে কীভাবে লোকেরা অভাবী ব্যক্তিদের জন্য সম্ভাব্য সকল প্রকারের সাহায্য প্রসারিত করার চেষ্টা করে।’

মণিপুরী আদিবাসীভূক্ত সোরাইজম উৎপল সিংহ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অব হবিগঞ্জের সহ-সাধারণ সম্পাদক এবং চুনারুঘাট ফটোগ্রাফিক সোসাইটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত।

শেয়ার করুন

কমেন্টবক্স

আপনিও স্ব মতামত দিন