হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারে শর্তারোপ

image

প্রকাশ: ২০২০/১২/০৮ ০২:২১

হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ তাদের ব্যবহারকারীদের উপর বেশ কিছু শর্তারোপ করবে। যেসব নিয়ম না মানলে বন্ধ হয়ে যাবে অ্যাকাউন্ট। এক বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে যে, ‘এগ্রি’ বাটনে ক্লিক করার অর্থ ব্যবহারকারীরা এই শর্তাবলী মেনে নিচ্ছেন।

ডব্লিউ এ বিটা ইনফো নামের একটি টুইটার অ্যাকাউন্টে এ সংক্রান্ত একটি শর্তারোপ করা হয়েছে। এই অ্যাকাউন্টের তথ্য অনুযায়ী, নতুন শর্তাবলী কার্যকর হবে আগামী বছর, অর্থাৎ ২০২১-এর ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে।

ডব্লিউ এ বিটা ইনফো পেজে তাদের টার্মস অ্যান্ড পলিসি আপডেটের স্ক্রিনশট দেওয়া হয়েছে। হোয়াটস্যাপের পক্ষে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের সব থেকে জনপ্রিয় এই মেসেজিং অ্যাপ বদল আনছে ইউজার ডেটা প্রসেসিং-এর ক্ষেত্রে। বিশেষত দুটি বিষয়ের উপর তারা নজর দিচ্ছে। এক, কীভাবে এই অ্যাপ আপনার ডেটা প্রসেস করবে। দুই, কীভাবে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো ফেসবুক পরিচালিত এই পরিষেবা ব্যবহার করে জরুরি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ম্যানেজ করবে।

হোয়াটসঅ্যাপের পক্ষে এই বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে যে, ‘এগ্রি’ বাটনে ক্লিক করার অর্থ ব্যবহারকারীরা এই শর্তাবলী মেনে নিচ্ছেন। এক্ষেত্রে তারা হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহার চালু রাখতে পারবেন। অন্যদিকে, ‘এগ্রি’ না করলে, হোয়াটসঅ্যাপ সেটিংস-এ গিয়ে তারা অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে পারেন।

হোয়াটসঅ্যাপ সাধারণত কোনও পরিকল্পনা নিয়ে মন্তব্য করে না। এছাড়াও, ব্রিটেনের একটি ওয়েবসাইট ‘দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট’-এর কাছে সংস্থার পক্ষে নিশ্চিত করা হয়েছে যে অ্যাপটি এরপর ব্যবহার করতে চাইলে ইউজারদের এই শর্ত মেনে নিতে হবে। ‘দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট’ জানাচ্ছে, “সংস্থার একজন মুখপাত্রের বক্তব্য অনুযায়ী অ্যাপ ব্যবহারে এই বদল এলে বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের জন্য অ্যাপটির ব্যবহার আরও সুবিধেজনক হবে।’

গত অক্টোবর মাসেই একটি ব্লগ পোস্টে এই নিয়ম-সংক্রান্ত বদলের স্পষ্ট ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল। হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাকান্টের একটি ব্লগ পোস্টে কোম্পানির তরফে বলা হয়েছিল, ‘আমরা আশাবাদী যে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন নিয়মাবলী ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান অথবা যে কোনও সাধারণ ইউজারের চাহিদা পূরণ করবে।’

শেয়ার করুন

কমেন্টবক্স

আপনিও স্ব মতামত দিন