প্রয়াত জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ। ফাইল ছবি

জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের অষ্টম প্রয়ান দিবসে করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া আদিবাসী, পতিতা ও নিম্ন মধ্যবিত্তদের আর্থিক সহযোগিতা করা হচ্ছে। রোববার সকাল ১১টায় লেখকের মৃত্যুবার্ষিকীতে গাজীপুর নুহাশপল্লীর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান লেখকের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন।

গতকাল (১৯ জুলাই) ছিল নন্দিত এই কথাশিল্পীর অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী দিবস। এই দিনে সমাধিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়েছেন স্বজন ও ভক্তরা। এসময় লেখকের দুই সন্তান নিষাদ ও নিনিত এবং অন্যপ্রকাশ প্রকাশনীর নির্বাহী মাজহারুল ইসলাম, হিমু পরিবহনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

হুমায়ূনের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। লেখকের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে ভক্তরা লেখককে নিয়ে নানা স্মৃতিচারণ করেন।

লেখকের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন জানান, ‘প্রতিবছর হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকীতে নানা আয়োজন করা হয়। করোনার কারণে এবারের আয়োজনের অর্থ দিয়ে একটি পতিতা পল্লী, বর্তমানে যাদের কোন আয় রোজগার নেই, আমরা তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। এই করোনাকালে নিম্নমধ্যবিত্ত যারা চাকরি হারিয়েছেন তাদের পাশেও অর্থ সহায়তা নিয়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। আমরা আদিবাসীদের পাশেও দাঁড়িয়েছি।’

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১৯ জুলাই বাংলা সাহিত্যের অন্যতম জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদ মরণব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে নিউইয়র্কে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। পরে হুমায়ূন আহমেদের নিজ হাতে গড়া নুহাশ পল্লীর লিচুতলায় তাকে দাফন করা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here