মেডিকেলে ভর্তি

মেডিকেলে ভর্তিতে কোটায় আদিবাসী শিক্ষার্থীদের বঞ্চিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে আদিবাসী ছাত্র পরিষদ। সংগঠনটি ‘আদিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য বরাদ্দকৃত আসনে’ অ-আদিবাসীদের স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর নির্বাচিত করেছে বলে অভিযোগ করেছে।

রোববার (১১ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির নেতারা এ অভিযোগ করেন।

সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক তরুণ মুন্ডা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে আদিবাসী কোটার আসন বন্টনে বলা আছে,  আদিবাসী (উপজাতীয়) ও অ-আদিবাসী কোটায় মোট ৩৩টি আসন বরাদ্দ  রাখা হয়েছে। যার মধ্যে পার্বত্য তিন জেলার আদিবাসীদের জন্য ৯টি, পার্বত্য অ-আদিবাসীদের জন্য ৩টি, অন্যান্য জেলার আদিবাসীদের জন্য ৮টি, এবং রাঙ্গামাটি মেডিকেল কলেজের জন্য সংরক্ষিত ১৩টি আসন বরাদ্দ রাখা রয়েছে। কিন্তু ফলাফলে দেখা গেছে, আদিবাসী কোটার আসনগুলোতে অ-আদিবাসীদের ভর্তির জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে।’
 
বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ‘পার্বত্য ব্যতীত অন্যান্য জেলার আদিবাসী শিক্ষার্থীদের কোটায় (৭৭ কোড) নির্বাচিত ৮ জনের মধ্যে ৫ জনই অ-আদিবাসী। সমতলের জেলাগুলো থেকে মাত্র ৩ জন আদিবাসী শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছে। এদিকে তিন পাবর্ত্য জেলার অ-আদিবাসীদের জন্য ৩টি আসন বরাদ্দ থাকলেও ৭ জনকে নির্বাচন করা হয়েছে। যার মধ্যে একজনকে আদিবাসী কোটায় বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। মোট ১২ জন অ-আদিবাসী শিক্ষার্থীকে আদিবাসী কোটায় ভর্তির জন্য নির্বাাচিত করা হয়েছে। ফলে আদিবাসী কোটায় ৯ জন অ-আদিবাসী শিক্ষার্থী নির্বাচিত হওয়ায় সমতলের ৫ জন এবং পাহাড়ের ৪ জন আদিবাসী শিক্ষার্থী মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।’

সংগঠনটি বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত সহ আদিবাসী কোটার আসনে কেবল আদিবাসী শিক্ষার্থীদেরই বরাদ্দ দেয়ার দাবি জানিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here