ফাল্গুনী স্কু
ফাল্গুনী স্কু। ছবি: ফেইসবুক।

বাক্স বন্দী স্বপ্ন গুলো,

অধির আগ্রহে দিন গুনছে অস্থিরতায়,

সংগোপনে সে চোখ বোলায় –

বাস্তবতার মুখোমুখি হওয়ার অপেক্ষায়।

সেই শিশুটিও স্বপ্ন দেখে-

মায়ের হাত ধরে স্কুলে যাওয়ার।

সেও স্বপ্ন দেখে অ আ বর্ণের

সাথে পরিচত হওয়ার।

সীমাহীন আকাশ ছোঁয়া ভাবনা গুলো তার

আশ্রয় খোঁজে চলেছে বাস্তবতার।

কিন্তু সে তার শুধুই ভাবনা

সকাল হলেই তাকে ফুল নিয়ে বেরুতে হবে,

ফুল বিক্রি হলে তো, খাবার জুটবে

আর না হলে না।

তবুও সে ক্লান্ত হয় না

রোজই তার বেরুতে হয়,

তাই এসব তার কোন ব্যাপারই না।

শুধু তার মনটা ঠিক থাকে না।

মানুষের দুমড়ানো মুচরানো

ধুলো উড়ানো আঘাত প্রাপ্ত রাস্তাটায়,

তাকে রাত্রিবেলা আপন করে কাছে টেনে নেয়

ঠিক যেন মায়ের কাছে থাকার অনুভুতি, 

আর ফুলগুলো হলো তার কথা বলার সাথী।

এ বছর ফুল তেমন বিক্রি না হলেও 

আজ ফুল কেনার জন্য প্রচুর ভিড় জমেছে।

হ্যাঁ, কোন প্রেমিক-প্রেমিকার জন্য নয়, 

তবে কিসের জন্য?

সে জানে না- আজ কার জন্মদিন, 

সে জানে না- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কে?

সে জানে না- শিশু দিবস কি?

সে জানে না- কবিতা, ছড়া কি?

সে জানে না- সে-ও যে শিশু,

সে শুধু জানে ফুল-রাস্তা-খোলা আকাশ,

রাস্তার এপার-ওপার, দম বন্ধ করা নিঃশ্বাস।

রাক্ষুসে পেটের জন্য দু’বেলা খাবার জোগাড়।

কে জানতে চাইবে তার মনের কথা?

সে-ও যে পড়তে চায়, স্কুলে যেতে চায়

বঙ্গবন্ধুকে চিনতে চায়। 

সে-ও দেশকে ভালোবাসতে চায়।

ধুলো মাখা গা টাকে পরিচয় করাতে চায়

নব সমাজের কাছে।

কিন্তু কে জানতে চাইবে?

শিশু দিবস কি শুধু তাদের জন্যই?

মনে তার একটাই প্রশ্ন শুধু,

আমিও কি শিশু?

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here