বান্দরবানে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের এক ধর্মীয় নেতার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তীব্র প্রতিবাদ ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী জনগণ। আজ বুধবার (৩১ জুলাই) জেলা প্রেসক্লাবে প্রায় ৫ শতাধিক ভুক্তভোগী মানববন্ধনে অংশ নেয়।

বান্দরবান বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের গুরু জোত মহাথের প্রকাশ উচহ্লা ভান্তের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে।

অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা দাবি করে বলেন, উচহ্লা ভান্তে ধর্মীয় সহানুভূতিকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান তৈরীর নাম করে জনসাধারণের কাছ থেকে জমি দখল করে নিচ্ছেন। আর সাধারণ জনগণ এর বিচার চাইলে উল্টো তাদের বিরুদ্ধে মামলা ও হামলা চালিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

এসময় বক্তারা বলেন, সর্বশেষ উচহ্লা ভান্তে ২০১৪ সালের ৫ এপ্রিল বান্দরবান ফাতেমা রাণী গির্জার ৫ দশমিক ৫৭ একর ধানী জমি জোর করে দখলে নেয়। এই জমি থেকে উৎপাদিত শস্য থেকে তিনশ’র অধিক অসহায় শিশু কিশোরদের অন্নের যোগাড় হতো। যা বর্তমানে উচহ্লা ভান্তের ভোগ দখলে থাকায় সম্ভব হচ্ছে না।

মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বড়ুয়া কল্যাণ সমিতির সভাপতি দিলীপ বড়ুয়া, হেডম্যান রাজকুমার নু মং প্র্রু, চট্টগ্রাম ক্যাথলিক ধর্ম প্রদেশের ফাদার জেরোম ডি’রোজারিও, ভুক্তভোগী সত্যহা পানজি ত্রিপুরা, পিস মহিলা কল্যাণ সংগঠনের সভানেত্রী নিনিপ্র্রু মারমা প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে ভুক্তভোগী জনসাধারণ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর এইটি স্বারকলিপি পেশ করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here