স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের খেলোয়াড় সুশান্ত ত্রিপুরা ও বাবলু হেমব্রম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ ফুটবলের ক্যাম্প শুরুর আগেই তাঁরা প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। এরমধ্য দিয়ে তাঁরা শুরু হওয়া অনুশীলনে আপতত যোগ দিতে পাচ্ছেন না। বাধ্য হয়ে থাকতে হচ্ছে হোম কোয়ারেন্টাইনে।

শুধু সুশান্ত-বাবলুই নন, আরও ৭ জন খেলোয়াড় করোনা পরীক্ষায় ‘পজিটিভ’ হওয়ায় ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার আগেই ছিটকে পড়েছেন। এরা হলেন- গোলকিপার শহীদুল আলম ও আনিসুর রহমান জিকো; ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশা, বিশ্বনাথ ঘোষ; মিডফিল্ডার সোহেল রানা ও রবিউল হাসান এবং ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

করোনা আক্রান্তের খবর সুশান্ত ত্রিপুরা নিজেই তাঁর ফেরিফায়েড ফেইসবুক অ্যাকাউন্টে জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের তত্ত্বাবধানে আমি কোভিড-১৯ টেস্ট করাই যাতে আমার করোনা পজিটিভ আসে। অনেকদিন পর ইনজুরি কাটিয়ে পুরো দমে দলে ফেরার অপেক্ষায় ছিলাম, তবে অপেক্ষা আরো দীর্ঘায়িত হলো। এটি আমার জন্য একটি বড় পরীক্ষা। সকলে আমার জন্য দোয়া ও প্রার্থনা করবেন। আমি বিশ্বাস করি দ্রুতই করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষে আবার দলে ফিরে লাল-সবুজের প্রতিনিধিত্ব করতে পারবো।’

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলে তিনজন আদিবাসী খেলোয়াড় খেলছেন। সুশান্ত-বাবলু ছাড়াও অন্যজন হলেন তপু বর্মন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here