পার্বত্য চট্টগ্রামের ২৮টি দুর্গম পাড়াকেন্দ্রকে প্রাথমিক স্তরে ডিজিটাল শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় আনা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে সরকারের টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তর ও পার্বত্য চট্রগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি হয়েছে।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের উপস্থিতিতে ডিজিটাল প্লাটফর্মে এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

পার্বত্য অঞ্চলের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে উঠার জন্য ডিজিটাল পাড়া কেন্দ্রকে একটি ‘ঐতিহাসিক মাইলফলক’ উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, এটি একটি নোবল ভেঞ্চার। এটি পশ্চাদপদ জনগোষ্ঠীকে ডিজিটাল করার বর্তমান সরকারের এক মহতি উদ্যোগ।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের মানব সম্পদকে ডিজিটাল দক্ষতা দিতে না পারলে বাংলাদেশের ভবিষ্যত তৈরি হবে না। শিক্ষার প্রাথমিক স্তর থেকে ডিজিটাল শিক্ষা অপরিহার্য। পাড়াকেন্দ্র এবং প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ডিজিটাল করতে পারলে বৈষম্যহীন ডিজিটাল সাম্য সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে পারব।

অনুষ্ঠানে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আফজাল হোসেন, বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুস্তফা কামাল, টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহসিনুল আলম এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক বদিউর রহমান বক্তব্য রাখেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here