-বাগাছাস

স্টাফ রিপোর্টার: নেত্রকোনা দুর্গাপুরের সোমেশ্বরী নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ এবং নদী ভাঙ্গন রোধে বাঁধ নির্মাণ ও ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস)। আজ সকাল ১০টায় মধুপুরের ভুটিয়া হাইস্কুল মোড়ে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বাগাছাস এ দাবি জানায়।

জ্যাক হাজংয়ের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাগাছাস কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি জন যেত্রা। তিনি বলেন, সোমেশ্বরী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে ঐতিহ্যবাহী গারো গ্রামগুলো বিলীন হয়ে যাচ্ছে। আজ আদিবাসীরা একত্রিত হয়েছে কারণ এই অন্যায় আর মেনে নেওয়া যাবে না। তাই প্রত্যেককে নিজ নিজ জায়গা থেকে প্রতিবাদ করতে হবে। মনে রাখতে হবে নিজেদের অধিকার নিজেদেরই সংগ্রাম করে আদায় করতে হবে।

মানববন্ধনে সমাজকর্মী হেলিন যেত্রা বলেন, মধুপুর কিংবা দূর্গাপুরেই শুধু সমস্যা নেই। যেখানেই আদিবাসী মানুষের বসবাস সেখানেই সমস্যা। অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে সেখাকার চাষাবাদ জমি ঘরবাড়ি গ্রামসহ বিলীন হয়ে যাচ্ছে। এইভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে আদিবাসীরা কোথায় যাবে। সোমেশ্বরী নদীর বালু উত্তোলনের ফলে গুটিকয়েক মানুষ লাভবান হচ্ছেন কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সবাই। তাই যত দ্রুত সম্ভব অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ হোক।

আদিবাসী নেতা গৌড়াঙ্গ কোচ বলেন, অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে ঐতিহ্যবাহী খামারখালি গ্রাম ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। অচিরেই বালু উত্তোলন বন্ধ করে ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতার দাবি জানান এই কোচ নেতা।

সোমেশ্বরী নদী ভাঙন রোধে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়ে বাগাছাস কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক অলিক মৃ বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটা আদিবাসীর নিরাপত্তা দেওয়া রাষ্ট্রের দায়িত্ব। শুধুমাত্র সোমেশ্বরী কিংবা বাসন্তী রেমার সমস্যা নয়, এমন অনেক সমস্যা পাহাড় এবং সমতলে রয়েছে যা আদিবাসীদের সুরক্ষায় রাষ্ট্রের দায়িত্ব রয়েছে। এই দায়িত্ব রাষ্ট্রকে পালন করতে হবে।

মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাগাছাস ঢাকা মহানগর শাখার আহ্বায়ক ডন যেত্রা, বাগাছাস কেন্দ্রীয় সংসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রেমাতুষ ম্রং, ঢাকা মহানগর শাখার সদস্য সচিব শোভন ম্রং, মধুপুর শাখার সভাপতি নিউটন মাজি প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here