সংগৃহীত ছবি

দিনাজপুর সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের উল্টগাঁওয়ে আত্রাই নদীর ঘাটে অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে নদীগর্ভে চলে গেছে আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী কবরস্থান। বালু উত্তোলনের ফলে এলাকার কয়েক একর জমি নষ্ট হয়ে গেছে। বহু গাছ ভেঙে নদীতে পড়ে ভেসে গেছে। নদী ভাঙনে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির, খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের গির্জা ঘর ঝুঁকিতে রয়েছে। বালু পরিবহনে এলাকাবাসীর চলাচলের রাস্তাটিও ভেঙে গেছে।

সরেজমিন দেখা যায়, অবৈধ ড্রেজার মেশিন ব্যবহারের ফলে নদীর দুই পাড়ের অসংখ্য বাড়ি ঘর ভেঙে গেছে নদী গর্ভে। এই এলাকায় দীর্ঘ ৫ বছর পূর্বে এক একর জমির ওপর একটি ঈদগাহ মাঠ স্থাপন করা হয়। কিন্তু নদী ভাঙনের ফলে সেটি এখন অর্ধেক পরিমাণে নেমে এসেছে। 

এছাড়া ভাঙনের কবলে পড়তে যাচ্ছে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের একটি দুর্গা মন্দির ও খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের গির্জা ঘর ঝুঁকিতে রয়েছে।

ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ দাখিল করেছে স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মো. মাহফুজুল আলম বলেন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে থেকে বালু মহল ইজারাদার দেওয়া হয়। তবে ড্রেজার মেশিন লাগিয়ে বালু উদ্ধোলন করতে পারবে না এমন শর্ত জড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপরও যদি কেউ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে তাহলে অবশ্যই তাকে আইনের আওতায় আনা হবে এবং বালু মহল ইজারাদার বাতিল করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here