সংগৃহীত ছবি

বৃহত্তর ময়মনসিংহের গারো পাহাড় পাদদেশে চা চাষের উদ্যোগ নিয়েছে চা বোর্ড। বোর্ডের আঞ্চলিক অফিস করা হবে ময়মনসিংহে। গতকাল রবিবার চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক ডা. মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে চা বোর্ডের একটি প্রতিনিধিদল শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী ও শ্রীবরদী উপজেলার আদিবাসী অধ্যুষিত বিভিন্ন অঞ্চল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

ময়মনসিংহের গারো পাহাড়ের পাদদেশে চা চাষের উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে। এরই মধ্যে ময়মনসিংহ বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় পরীক্ষামূলক চা উৎপাদন শুরু হয়েছে। সফলতা পাওয়ায় এই উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে বলে প্রতিনিধি দলটি গণমাধ্যমে জানান।

এরআগে বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রতিনিধি দলটি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা, টাঙ্গাইলের মধুপুরসহ আরো কয়েকটি জেলার বিভিন্ন উপজেলার পাহাড়ি অঞ্চলের পরীক্ষামূলক চা বাগান পরিদর্শন করেন।

এসময় চা বোর্ডের কৃষিতত্ত্ব বিভাগের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ মাসুদ রানা, কীটতত্ত্ব বিভাগের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ শামীম আল মামুন, মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা নাঈম মোস্তফা আলী ও সহকারী উন্নয়ন কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান আকন্দ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি দলটি ঝিনাইগাতীর গজনী, বাকাকুড়া এবং শ্রীবরদীর খাড়ামোড়া এলাকায় যান। সেসব স্থানে গারো হিলস টি কম্পানির মাধ্যমে সৃজন করা পরীক্ষামূলক চা বাগান পরিদর্শন এবং চা চাষিদের সঙ্গে মত বিনিময় সভা করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here