বাগদী আদিবাসীরা যুগ যুগ ধরে কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে বসবাস করে আসছে। এখানে তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে কেউ বঞ্চিত করতে পারবে না। কেউ আদিবাসীদের ভূমি দখল করার চেষ্টা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি জারি করেছেন কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ।

শনিবার (১৮ জানুয়ারী), সকালে পৌরসভার ব্রুজরুক দুর্গাপুর মৌজার বাগদী আদিবাসী সম্প্রদায়ের ভূমি দখলের অভিযোগে সরেজমিন পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন। কুমারখালী মহিলা কলেজের বাণিজ্য বিভাগের প্রভাষক তুহিনুর রহমান তুহিন কর্তৃক বাগদী আদিবাসীদের জমি দখলের অভিযোগে তিনি এ পরিদর্শন করেন।

ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা যেখানে প্রতিটি মানুষের মৌলিক অধিকার বাস্তবায়নে দিনরাত কাজ করে চলেছেন সেখানে ভূমিদস্যুদের কোন পায়তারা সহ্য করা হবেনা। এসময় তিনি অল্প সময়ের মধ্যে আদিবাসীদের নির্ধারিত জায়গা পাকা সীমানা প্রাচীর দিয়ে নির্ধারণ করা হবে বলে জানান তিনি আরও জানান, প্রয়োজনে তাদের বর্ধিত জমির ব্যবস্থা করা হবে।

পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুমারখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন খান তারেক, পৌর আওয়ামী লীগের সাধার সম্পাদক আক্তারুজ্জামান নিপুন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হারুনঅর রশিদ, আদিবাসী কল্যাণ সমিতির সভাপতি মদন প্রমুখ

উল্লেখ্য, গত ১৫ জানুয়ারি মহিলা কলেজের প্রভাষক তুহিনুর রহমান তুহিন কুমারখালীর বিলুপ্ত প্রায় বাগদী আদিবাসীদের জমি দখলের চেষ্টা করে। ঐদিন ভূমি দখলের প্রতিবাদে আদিবাসীরা উপজেলা সহকারী কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here