স্টাফ রিপোর্টার: মাতৃভাষা সংরক্ষণ, পুনরুজ্জীবন, বিকাশ, চর্চা, প্রচার-প্রসারে অবদানে স্বীকৃতির জন্য প্রথমবারের মতো ‘আন্তজর্জাতিক মাতৃভাষা পদক’ ঘোষণা করেছে সরকার। প্রথম বছরেই তিন গুণী এ পুরস্কার পাচ্ছেন।

ককবরক ভাষা সংরক্ষণ, সমৃদ্ধিকরণে অবদান রাখায় এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন খাগড়াছড়ির জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা। এছাড়াও জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম ও উজবেকিস্তানের গবেষক ইসমাইলভ গুলম মিরজায়েভিচ এ বছর প্রথমবারের মতো এ পুরস্কার পাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটের পরিচালক মো. শাফীউল মুজ নবীন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

শাফীউল মুজ নবীন বলেন, সরকার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর এ বছরই প্রথম এ সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে। দুই বছর পর পর জাতীয় পর্যায়ে দুটি এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দুটি পদক দেওয়া হবে।

আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি বিকালে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক দেবেন বলে জানান মাতৃভাষা ইন্সটিটিউটের পরিচালক।

মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা বাংলাদেশের বিভিন্ন ভাষা সংরক্ষণ, পুনরুজ্জীবন, বিকাশ ও এসব ভাষায় শিক্ষা কার্যক্রম প্রণয়নে কাজ করেছেন। তিনি আদিবাসীদের শিক্ষার চিত্র, মাতৃভাষায় শিক্ষা পরিস্থিতি, মাতৃভাষাভিত্তিক বহুভাষিক শিক্ষাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here