স্টাফ রিপোর্টার: দেশের উত্তরাঞ্চলের পিছিয়ে থাকা আদিবাসীদের এগিয়ে আনতে সরকারি ও সামাজিক সহযোগিতার আহ্বান জানিয়ে মতবিনিময় সভা হয়েছে। গতকাল সকালে রাজশাহী নগরীর শাহমুখদুম কলেজ মিলনায়তনে স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা আত্ম ও সামাজিক সংস্থা (আসাউস) এর আয়োজনে এ সভা হয়।

এ সময় বক্তারা বলেন, সমাজে আদিবাসীরা এখনও পিছিয়ে রয়েছেন। কিন্তু এসব বিষয় সরকারের পলিসি লেভেলে খুব একটা পৌঁছায় না। এ কারণে আদিবাসীরা দিনদিন পিছিয়েই পড়ছেন। তাই তাদের পিছিয়ে পড়ার তথ্য গণমাধ্যমে আরও বেশি করে তুলে ধরা প্রয়োজন।

সভায় একটি গবেষণার ফলাফল তুলে ধরে জানানো হয়, করোনাকালে ৫৬ শতাংশ শিশু টেলিভিশনে প্রচারিত পাঠদানে অংশ নিচ্ছে না। আর ৭৫ শতাংশ আদিবাসী শিশু টেলিভিশনে প্রচারিত পাঠদানে অংশ নেয় না। এর কারণ, তাদের কারও বাড়িতে বিদ্যুৎ নেই, আবার বিদ্যুৎ থাকলেও টেলিভিশন নেই। আদিবাসীদের আর্থিক অনটনের কারণেই তাদের এসব নেই। যার কারণে শিক্ষা থেকেও আদিবাসী শিশুরা বঞ্চিত হচ্ছে। তাই আদিবাসীদের বিশেষ প্রণোদনা দেয়া দরকার।

সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন আসাউসের নির্বাহী পরিচালক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু। সভাপতিত্ব করেন আসাউসের সহ-সভাপতি অসিত পালন। সভায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বিভূতি ভূষণ মাহাতো। সভা পরিচালনা করেন দপ্তর সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র হেমব্রম।

এছাড়াও সভায় অন্যান্যের মধ্য অংশ নেন সামাজিক সংগঠন রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান, বরেন্দ্র উন্নয়ন প্রচেষ্টার নির্বাহী পরিচালক ফয়জুল্লাহ চৌধুরী, রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের কৌশলী এন্তাজুল হক বাবু, নগরীর সাত নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মতিউর রহমান, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের জেলার সাধারণ সম্পাদক অঞ্জনা সরকার, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক গণেশ মার্ডি প্রমুখ।

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here